আলোকিত রাঙামাটি
  • শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৪ ১৪২৭

  • || ১৩ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে করোনায় মোট আক্রান্ত- ১২৫৮, মোট সুস্থ- ১২১১, মোট মৃত্যু- ১৬ জন।

একইসঙ্গে একাধিক দুর্যোগ সামলাতে সক্ষম স্বপ্নের পদ্মাসেতু

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০২০  


বিজয়ের মাসেই পুরো পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হওয়ায় পদ্মা জয়ের স্বপ্নপূরণ হয়েছে। এদিকে পদ্মাসেতুর পুরো অংশ দৃশ্যমান হওয়ার পাশাপাশি জানা গেল নতুন তথ্য।

ভূমিকম্পসহ একসঙ্গে ভয়াবহ চার ধরনের ধাক্কা-দুর্যোগ সামলে নেয়ার সক্ষমতা নিয়ে তৈরি করা হচ্ছে পদ্মাসেতু। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

পদ্মাসেতু নির্মাণাকারী কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ সেতু বিভাগের সাবেক এই সচিব জানান, সমসমায়িক বিশ্বে কোনো নদীতে নিমির্ত সবচেয়ে বড় প্রকল্প পদ্মাসেতু। নির্মাণাধীন এ সেতুকে বলা হয় বাংলাদেশের ‘স্বপ্নের সেতু’। কংক্রিট কাঠামোর খুঁটি ও ইস্পাতের স্প্যানের এই সেতু এতই শক্তিশালী যে রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্প সহনশীল।

তিনি আরো বলেন, যদি কখনো রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। আর ঠিক তখনই যদি পিলারের নিচে থেকে ৬৫ মিটার মাটি সরে যায়। একই সময় যদি পুরো সেতু রেল এবং যানবাহনে লোড থাকে। ওই সময় ৫ হাজার মেট্রিক টন ওজনের আরো একটি জাহাজ এসে সেতুর পিলারে ধাক্কা মারে তাহলেও পদ্মাসেতুর কিছুই হবে না।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পদ্মাসেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর ‘টু-এফ’ নামের ৪১তম স্প্যানটি স্থাপনের মধ্য দিয়ে বর্তমানে পুরো ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতু দৃশ্যমান।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি