আলোকিত রাঙামাটি
  • সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৬ ১৪২৭

  • || ০২ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
রাঙামাটির উপজেলা ভিত্তিক করোনা আপডেটঃ- রাঙামাটি সদর- আক্রান্ত ৬১৯, কাপ্তাই- আক্রান্ত ১১৬, কাউখালী- আক্রান্ত ৩১, বাঘাইছড়ি- আক্রান্ত ২৫, বরকল- আক্রান্ত ০৫, লংগদু- আক্রান্ত ২৫, রাজস্থলী- আক্রান্ত ১১, বিলাইছড়ি- আক্রান্ত ১৩, জুরাছড়ি- আক্রান্ত ২৩, নানিয়ারচর- আক্রান্ত ১০। মোট আক্রান্ত- ৮৭৮, মোট সুস্থ- ৭৭৬, মোট মৃত্যু- ১২ জন।
৩৪৯

জুমার সময় অন্যদের কষ্ট দেয়া থেকে বিরত থাকুন

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০২০  

সাপ্তাহিক দিনগুলোর মধ্যে শ্রেষ্ঠ দিন হলো জুমা


বিশ্বনবী রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘সূর্য উদিত হওয়ার দিনগুলোর মধ্যে জুমার দিন সর্বোত্তম। এই দিন আদম (আ.)-কে সৃষ্টি করা হয়েছে, এই দিন তাকে জান্নাতে প্রবেশ করানো হয়েছে এবং এই দিন তাকে জান্নাত থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। (মুসলিম, হাদিস : ১৮৬১)।

সাপ্তাহিক দিনগুলোর মধ্যে শ্রেষ্ঠ দিন হলো জুমা। এই দিন মুসলমানদের জন্য অধিক গুরুত্বপূর্ণ।

যারা জুমার নামাজের জন্য খুতবা শুরু হওয়ার পরে মসজিদে এসে তাড়াহুড়া করে সামনে আসতে চেষ্টা করে, হাদিস শরিফে তাদের প্রতি কঠোর সতর্কবাণী উচ্চারণ করা হয়েছে। ইমাম তিরমিযী কর্তৃক বর্ণিত হাদিসে আছে, যে ব্যক্তি জুমার জামাতে পরে এসে লোকজনের কাঁধ ডিঙ্গিয়ে সামনের দিকে স্থান নিতে চেষ্টা করে সে যেন নিজের জন্য জাহান্নামে যাওয়ার একটি সেতু নির্মাণ করলো।

ইমাম আহমদ (র.) বর্ণনা করেন যে, একদা রাসূল (সা.) জুমার খুতবা দিচ্ছিলেন, এ সময় এক ব্যক্তিকে উপবিষ্ট লোকদের কাঁধ ডিঙ্গিয়ে সামনের দিকে অগ্রসর হতে দেখে অত্যন্ত বিরক্তির সঙ্গে বললেন, ওহে! বসে পড়, দেরিতে এসেছ এবং অন্যদের কষ্ট দিচ্ছ।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি