ব্রেকিং:
রাঙামাটিতে নতুন করে ২ জন করোনায় আক্রান্ত, এনিয়ে মোট আক্রান্ত ৫৮ জন
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
কাপ্তাইয়ে এক আনসার সদস্যের করোনা পজিটিভ বাঘাইছড়িতে কৃষকের কাছ থেকে বোরো ধান সংগ্রহের লটারি অনুষ্ঠিত করোনায় স্কুল বন্ধ কাপ্তাইয়ে অনলাইন ক্লাসের জনপ্রিয়তা বাড়ছে মুষলধারে বৃষ্টি, কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধ্বসের আশংকা করোনা প্রতিরোধে রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্টের ৯০ লাখ টাকার ‘নগদ অর্থ সহায়তা’ প্রদান
১৬৩০

জেএসএস (সন্তু) কর্তৃক বৌদ্ধ বিহার পুড়ানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০২০  


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- রাঙামাটির বিলাইছড়িতে জেএসএস (সন্তু) কর্তৃক আগুন দিয়ে ধুপশীল বৌদ্ধ ভাবনা কেন্দ্র পোড়ানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিহার পরিচালনা কমিটি।

সোমবার (১৮ মে) বেলা ১২টা ১০ মিনিটে রাঙামাটি প্রেস ক্লাব রির্জাভ বাজারে ধুপশীল আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ ভাবনা কেন্দ্রের পরিচালনা কমিটির আয়োজনে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

গত ১৫ মে জেএসএস (সন্তু) সন্ত্রাসী কর্তৃক রাঙামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার ধুপশীল আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ ভাবনা কেন্দ্র আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভাবনাকেন্দ্রের অধ্যক্ষ ড. এফ দীপঙ্কর মহাথেরো (ভান্তে) এবং উক্ত ভাবনা কেন্দ্র সংশ্লিষ্ট ০৪ জন ভিক্ষু সংঘ ১। শ্রীমৎ মহানামা ভিক্ষু, ২। শ্রীমৎ মেমির ভিক্ষু, ৩। শ্রীমৎ জ্ঞাতিনমত্র ভিক্ষু, ৪। চঞ্জিতমিত্র ভিক্ষু সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে আনুমানিক ৩০-৩৫ জন মিডিয়াকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে ড. এফ দীপঙ্কর মহাথেরো অভিযোগ করেন যে, বিভিন্ন সময় জেএসএস মূল দলের বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রম এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এবং পাহাড়ি জনসাধারণদের সন্ত্রাসী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার জন্য নিষেধ করার কারণে, হিংসাত্মক মূলক ভাবে উক্ত ভাবনা কেন্দ্র আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। উক্ত অগ্নিকাণ্ডে থাইল্যান্ড কর্তৃক প্রেরিত অষ্টধাতুর সুবিশাল মূল্যবান বুদ্ধমূর্তিসহ, বুদ্ধবাণী পবিত্র ত্রিপিটক, ভিক্ষুসংঘ, ভাবনাকারিদের নানাবিধি ব্যবহার্য সামগ্রী, আসবাবপত্র সহ আনুমানিক ২ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

পরিশেষে ড. এফ দীপঙ্কর ভান্তে কর্তৃক উপস্থিত সকল সাংবাদিকদের মাধ্যমে, মাননীয় রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সেনা প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী এবং সকল সরকারি কর্মকর্তাদের মাধ্যমে, উক্ত ঘটনার পিছনে জড়িত সংশ্লিষ্ট সকল সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর