ব্রেকিং:
স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১লা জুন থেকে রাঙামাটির ৬ টি উপজেলায় লঞ্চ চলাচল শুরু
  • রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
বাঘাইছড়িতে ১৫ প্রতিবন্ধী পেলো প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাঘাইছড়ি প্রেস-ক্লাবের স্থায়ী ভবন নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন লংগদুতে ১০টি মাদ্রাসার ৪শত ছাত্রদের মাঝে `প্রধানমন্ত্রীর উপহার` শিশু খাদ্য বিতরণ ‘হাসপাতাল গুলোতে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জাম নিশ্চিত করা হবে’ কাঁচামাল সংকটে একসপ্তাহ ধরে কেপিএমের উৎপাদন বন্ধ
৩০৪০

ত্রাণ বিতরণে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগ 

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১ এপ্রিল ২০২০  

ভুষনছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন ছবি: আলোকিত রাঙামাটি


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- নভেল করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় গৃহবন্দি হত দরিদ্র এবং অসহায় মানুষের ত্রান সামগ্রী বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে বরকল উপজেলার ০৪নং ভুষনছড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন এর বিরুদ্ধে।

সরকারি বিভিন্ন তহবিল থেকে পাঠানো এসব সাহায্য পরিবার প্রতি চাউল -১০ কেজি, ডাল-৫০০ গ্রাম, তৈল-৫০০ গ্রাম, আলু-০১ কেজি বরাদ্দ থাকলেও তা বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই অনিয়ম ও দূর্নীতির সাথে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন সরাসরি জড়িত বলে সাধারণ মানুষ মনে করছেন।

গত (২৯ মার্চ) এ্যারাবুনিয়া বাজারে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কর্তৃক গৃহবন্দি হত দরিদ্র এবং অসহায় মানুষের জন্য ত্রান সামগ্রী আসে। এসব ত্রান সামগ্রী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন নিজে উপস্থিত থেকে বিতরণে অনিয়ম করেছেন। এ সময় লোক দেখানো মাত্র ৩০ পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। তাও পরিবার প্রতি চাউল-০৬ কেজি, ডাল-৫০০ গ্রাম, তেল-৫০০ গ্রাম, আলু- ০১ কেজি করে বিতরণ করেন। যেখানে পরিবার প্রতি ৪ কেজি করে চাল কম বিতরণ করেছেন তিনি। মাত্র ৩০ পরিবার এর মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছে এমন অভিযোগ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে আসলে তখন এলাকার ৮০/৯০ জন সাধারণ মানুষ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে একাধিক অনিয়ম সম্পর্কে তুলে ধরেন। 

সাধারণ জনগণ অভিযোগ করে বলেন, বন্যা ও দুর্যোগ পরিস্থিতিতে হতদরিদ্রের জন্য যে সকল ত্রাণ সামগ্রী সরকার কর্তৃক আমাদের দেয়া হয় এসব ত্রান সঠিকভাবে বিতরণ করেন না এই ইউপি চেয়ারম্যান। চেয়ারম্যানের মনোনীত ব্যক্তিদের মাধ্যমে এসব ত্রাণ বিতরণ করা হয়। ফলে বিতরণে অনিয়ম করলেও সেখানে সাধারণ জনগণ কোনো কথা বলার সাহস পায় না। ত্রাণগুলো তার মনোনীত ব্যক্তিদের মাধ্যমে বিতরণ করার ফলে ওজনে সঠিক পরিমাপ কিংবা সঠিক হয় না। এসব কর্মকান্ডে চেয়ারম্যানের উপর অতিষ্ঠ এলাকার সাধারণ মানুষ। 

এদিকে আজ (১লা এপ্রিল) আরেকটি ত্রাণ বিতরণেও অনিয়ম লক্ষ্য করা গেছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ছোট হরিণা বাজার এর পার্শবর্তী মাষ্টার পাড়ায় ০৪ নং ভুষনছড়া ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন এর নেতৃত্বে ০৩ নং ওয়ার্ডে ত্রান সামগ্রী বরুন চাকমার নিকট পাঠানো হয়। ২৪টি হত দরিদ্র পরিবারের মাঝে ০৫ কেজি চাউল, ডাল- ৪০০ গ্রাম, তেল- ৫০০ গ্রাম অস্বাস্থ্যকর সরিষার তেল, আলু- ০১ কেজি বিতরণ হয়। আজকের এই বিতরণের সময় ইউনিয়ন পরিষদের কোন ব্যাক্তি উপস্থিত ছিলেন না। সকলের সামনে ১০ কেজি চাউল এর জায়গায় পরিবার প্রতি ০৫ কেজি হারে কম চাল বিতরণ করেছেন তিনি। 



দেশের এই দুর্দিনে সর্বস্তরের মানুষ যেখানে সাহায্য সহযোগিতা করে আসছে সেখানে জনগণের ভোটে নির্বাচিত চেয়ারম্যান নিজেই অনিয়মের এক বিরল সাক্ষী হিসেবে রইলেন। যেখানে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “ ত্রাণ নিয়ে কেউ কোনো দুর্নীতি করলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না” অথচ ভূষণছড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রতিটা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কালে তার অনিয়ম এবং দুর্নীতি চলমান রেখেছেন বহাল তবিয়তে। 

তিনি সুকৌশলে এমন স্থানে ত্রান বিতরণ করেন যে এলাকার হতদরিদ্র মানুষ অনেকেই এ ব্যাপারে জানে না যে এলাকায় ত্রাণ বিতরণ হচ্ছে।  জনগণের এই দুর্যোগময় মুহূর্তে সাধারণ হতদরিদ্রের ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে অনিয়ম চলছে এবং এই অনিয়মের বিরুদ্ধে সরকারিভাবে উক্ত চেয়ারম্যান এর উপর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য এলাকাবাসী জোর দাবী করেন।

এলাকাবাসী আরো বলেন, এলাকার হতদরিদ্র সাধারণ মানুষের ত্রাণ সামগ্রী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য কর্তৃক বিতরণ করা হউক এবং অনিয়ম দূর্নীতির করার জন্য চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন এর বিচার দাবি করছেন এলাকার হতদরিদ্র সাধারণ জনগণ।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর