আলোকিত রাঙামাটি
  • বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১৬ ১৪২৭

  • || ১২ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে নতুন করে আরো ৩ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট আক্রান্ত- ৯০৩, মোট সুস্থ- ৮৫০, মোট মৃত্যু- ১৩ জন। সারাদেশে ধর্ষণ-নির্যাতন বন্ধ এবং অপরাধীদের শাস্তির দাবীতে রাঙামাটিতে স্বেচ্ছাসেবীদের মানববন্ধন
১৫২০

দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রাঙামাটি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ফাইল ছবি


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- প্রবেশনের শর্ত পূরণ করে মাদকাসেবী ভালো হওয়ায় আসামীকে কলম উপহার দিলেন রাঙামাটির চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। 

রাঙামাটির বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ. এন. এম. মোরশেদ খান গত (০৮.০১.২০২০) তারিখের এক রায়ে রাঙামাটির দেবাশীষ নগর নিবাসী ২৫ বছর বয়সের এক যুবককে (সংগত কারনে নাম পরিচয় প্রকাশ করা হলনা) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৯০ এর অধিন একটি মামলায় আসামীর ৬ মাসের কারাদন্ড স্থগিত করে আসামীকে ৫টি শর্তে প্রবেশন দিয়েছিলেন।

আজ বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) প্রবেশন কর্মকর্তা মিসেস আলপনা চাকমার প্রদত্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এবং আসামী, আসামীর মা ও স্ত্রী ও বিজ্ঞ কৌসুলি এ্যাড. মামুনুর রশীদ মামুন এর বক্তব্য শ্রবণ করে ও আসামীর আচরণে সন্তোষ্ট হয়ে রায় বাস্তবায়ন কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষণা করেন। 

আদালতের বেঞ্চসহকারী মোঃ মনজুরুল ইসলাম ও আসামীর বিজ্ঞ কৌসুলি এ্যাড. মামুনুর রশিদ মামুন সূত্রে জানা যায়, উক্ত আসামী ছিলেন নিরক্ষর। কিন্তু তার মা ও স্ত্রী লিখতে পড়তে জানেন। আদালত উক্ত আসামীকে প্রবেশন প্রদান কালে অন্যান্য সদাচরনের শর্তের সাথে মায়ের নিকট অক্ষর জ্ঞান, শব্দ ও বাক্য গঠন শিখবেন মর্মে শর্ত দেন। আসামী সে মোতাবেক মায়ের কাছে লেখাপড়া শিখেন। আদালতে তিনি নিজে বর্ণ ও শব্দ লিখে দেখান। এতে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক সন্তুষ্ট হয়ে আসামীকে, তার মাকে এবং প্রবেশন কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ প্রদান করেন। আদালতের বিচারক তাঁর নিজের পক্ষ থেকে আসামীকে একটি কলম সৌজন্য উপহার প্রদান করেন। 

প্রবেশন কর্মকর্তা আলপনা চাকমা জানান, প্রথমে অপরাধীদেরকে যদি প্রবেশন দিয়ে অপরাধ জগত থেকে রক্ষা করা যায় তাহলে সমাজে অপরাধ কমে আসবে বলে আশা করা যায়।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর