আলোকিত রাঙামাটি
  • মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৫ ১৪২৭

  • || ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে মোট করোনায় আক্রান্ত- ৯২৩, মোট সুস্থ- ৮৮৫, মোট মৃত্যু- ১৪ জন।
১৪৩৬

নানিয়ারচরে বন্দুকযুদ্ধে নিহতের লাশ মর্গে, এলাকায় চরম আতংক

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০২০  

ছবি:- আলোকিত রাঙ্গামাটি 


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ- রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় সেনাবাহিনীর টহল দলের উপর ইউপিডিএফ (প্রসীত) গ্রুপের সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষন ও পরবর্তী আর্ত্মরক্ষাতে সেনাটহল দল কর্তৃক পাল্টা হামলায় নিহত ২ ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীর লাশ বুধবার ১৪ অক্টোবর মর্গে আনা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘটনার পর নানিয়ারচর উপজেলায় চরম আতংক বিরাজ করছে। হত্যাকান্ড সংঘটিত এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর তৎপরতা বৃদ্ধি সহ পুরো নানিয়ারচর উপজেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশি তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। হত্যাকান্ডে এলাকা থেকে পুলিশ একটি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে।

এদিকে, হামলার ঘটনায় আহত সেনা সদস্যকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গতকাল রাতেই হেলিকপ্টারের সহায়তায় চট্টগ্রাম সিএমএইচ এ নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বর্তমান তিনি আশংকামুক্ত আছেন বলে বাহিনীসূত্র নিশ্চিত করেছে।

অপরদিকে, নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা প্রত্যেকেই চরম আতংকের মধ্যে বসবাস করছেন। কি হচ্ছে, কেন হচ্ছে তা অনেকটাই স্পষ্ট, কারণ ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী। তারা প্রত্যেকে এ ধরনের সশস্ত্র সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের ঘৃণা করেন বলে জানান।

নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ জানান, নিহত দুই জনের লাশের মধ্যে একজন রকেট চাকমা ও অপরজন ইন্দ্র জয় চাকমা। দুজন লাশের পরিচয় পাওয়া গেলেও তাদের কোন আত্মীয় স্বজন লাশের খোঁজ করতে আসেনি। 

উল্লেখ্য যে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেনাটহলের উপর ইউপিডিএফ (প্রসীত) সন্ত্রাসীরা অতর্কিত গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ সময় এক সেনা সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়। আত্মরক্ষার্থে সেনাবাহিনী পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে তাদের মধ্যে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলের দুই সন্ত্রাসী নিহত হয়। 

 

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর