ব্রেকিং:
স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১লা জুন থেকে রাঙামাটির ৬ টি উপজেলায় লঞ্চ চলাচল শুরু
  • রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
‘হাসপাতাল গুলোতে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জাম নিশ্চিত করা হবে’ কাঁচামাল সংকটে একসপ্তাহ ধরে কেপিএমের উৎপাদন বন্ধ করোনায় ঈদে পর্যটক শূন্য রাঙামাটি, স্পটে নেই মানুষের কোলাহল রাঙামাটি জেলা সদর হাসপাতালে পিসিআর ল্যাব, আইসিইউ স্থাপন ও কিডনী ডায়ালেসিস এর ব্যবস্থা নিতে জোর দাবী জানিয়েছেন রাঙামাটি সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এমপি বাঘাইছড়িতে কৃষকের কাছ থেকে বোরো ধান সংগ্রহের লটারি অনুষ্ঠিত
১৮৮৮

বাঘাইছড়িতে ১৭২ মে.টন চাল-৮ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  


ওমর ফারুক সুমনঃ- রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ১৭২ মেট্রিকটন চাউল ও নগদ ৮ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৩ মে) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবিব (জিতু) এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ত্রাণ ও দূর্যোগ মন্ত্রণালয় স্বারক নং- ৫১.০০.০০০০.৪২৩.৪০.০০৫.২০২০.-২২২, অদ্য ৭ এপ্রিল ২০২০ ইং তারিখে রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মাধ্যমে বাঘাইছড়ি উপজেলায় এই বরাদ্দ ও অর্থ সহায়তা আসে।

এরই মধ্যে উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নের জনসংখ্যা ও আয়তনের অনুপাতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় সচ্ছতার ভিত্তিতে সমভাবে বন্টন করা হয়েছে। বাকী খাদ্যশস্য ও অর্থও একই নিয়মে বন্টন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানাযায় প্রাপ্ত বরাদ্দ ৩ ভাগে, জিআর ক্যাশ নগদ টাকা ৮ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, জিআর চাউল ১৭২ মেট্রিকটন, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। উক্ত বরাদ্দের জিআর ক্যাশ নগদ টাকার আওতায় ১০ হাজার ২৫৮ পরিবারের ৪১ হাজার লোক উপকার ভোগী হয়, জিআর চাওলের আওতায় ১৪ হাজার ২ শত পরিবারে ৭১ হাজার ৮ শত লোক উপকার ভোগী হয় এবং জিআর শিশু খাদ্যের আওতায় ১ হাজার ৯৪০ পরিবারে ৩ হাজার ৮৮০ শিশু এই উপকার ভোগী হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবিব (জিতু) বলেন জনসংখ্যার অনুপাত ও আয়তনের দিক বিবেচনায় সাজেক ইউনিয়নে সবচেয়ে বেশী বরাদ্দ দেয়া হয়, উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ট্যাগ অফিসার নিয়োগ ও জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে শতভাগ সচ্ছতার ভিত্তিতে এসব বরাদ্দ বিতরন করা হয়েছে।

এখনো জিআর ক্যাশের আওতায় নগদ ১ লক্ষ ১৫ হাজার টাকা, জিআর চাউলের আওতায় ৩০ মেট্রিকটন চাল এবং জিআর শিশু খাদ্যের আওতায় ৪৫ হাজার টাকা মজুদ রয়েছে, এরই মধ্য উপকার ভোগীদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে শীঘ্রই স্বচ্ছতার ভিত্তিতে বিতরণ করা হবে।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর