• বুধবার   ০৩ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
স্বাস্থ্য বিধি মানা হচ্ছে না, সংক্রমণের আশঙ্কা রাজস্থলীতে রাঙামাটিতে শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতসহ সামাজিক দূরত্ব ও বাজার মনিটরিংয়ে মাঠে নেমেছে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন নানিয়ারচরে অসহায় ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণের চাল বিতরণ কাউখালীতে জনপ্রতিনিধিদের মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরণ রাঙামাটিতে এনজিও গুলোর ঋণ আদায় কার্যক্রম শুরু, বিপাকে ঋণ গ্রহীতরা
৯৭৮

রাঙামাটির ১০ উপজেলার মানুষের পাশে মনি পাহাড়ী ও আশিক সুমন

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১১ মে ২০২০  


করোনা পরিস্থতিতে ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো করে আলোচনায় এসেছেন মনি পাহাড়ী এবং আশিক সুমন। যে কোনো দুর্যোগে সাধারণ মানুষকে সহায়তা করার জন্য শিল্পীরা বিভিন্ন চ্যারিটি শোর আয়োজন করেন। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে সেটা সম্ভব নয়। সে কারণে গতি থিয়েটার এর সভাপতি মনি পাহাড়ী প্রথম ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো এর কথা ভাবেন। তাঁকে সমর্থন দেন শিল্পী আশিক সুমন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৪ থেকে ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো করলেন তাঁরা। ব্যতিক্রমী এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বিভিন্নমহল। মনি পাহাড়ী বলেন "কিছুদিন থেকে লক্ষ্য করছি একটি মানবিক ফেসবুক কমিউনিটি গড়ে উঠেছে। ভালো কাজে এগিয়ে আসা মানুষের সংখ্যা অনেক। দুর্যোগে সহযোগিতা দিতে বহু চ্যারিটি শো হয় পৃথিবী জুড়ে। কিন্তু এখন সময়টা ঘরে থাকার। ঘরবন্দী এ সময়ে চ্যারিটি করতে তাই ফেসবুক লাইভ এর আশ্রয় নিলাম। "লাইভে দুটি বিকাশ নাম্বার দিয়েছেন তিনি।। সেগুলো হলো ০১৭১২ ০৫১২৩১, ১৭১৭৪৮১০০৬।। 

এছাড়া ব্যাংকের মাধ্যমে দেশ-বিদেশ থেকে আর্থিক সহায়তা পাঠাতে চাইলে মনি পাহাড়ী (mony pahari) ও (ashiq sumon) এর মেসেঞ্জারে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেছেন। তাঁরা ১০ টাকা থেকে শুরু করে যে কোনো অংকের অর্থ সামর্থ্য অনুযায়ী সহযোগিতার আহ্বান জানান।

মনি পাহাড়ী আরও বলেন, "ব্যক্তিগতভাবে পরিচিত এবং শুধুমাত্র ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচিতদের সাড়াটা প্রত্যাশার অধিক। সংকট সারাবিশ্বে, তবুও যে যতটুকু পারছে সেটুকু নিয়ে এগিয়ে আসছে। বিদেশ থেকেও অনুদান পাচ্ছি আমরা। এর মধ্যে অষ্ট্রেলিয়া, সুইজারল্যান্ড, লন্ডন, কাতার, বাহরাইন, ওমান ও সিঙ্গাপুর থেকে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অনুদান এসেছে। এই সাড়াটা প্রত্যাশার অধিক।" রোজার মধ্যে সময়টা পরিবর্তন করেছেন তারা ভিউয়ারদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে। লাইভ শো এর নতুন সময় রাত ১০.৩০ মিনিট। মানুষের ইতিবাচক সাড়া পেয়ে দু'দিন পরপর ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো নিয়ে আসার কথা জানালেন গতি থিয়েটার এর এই দুই কর্ণধার।

 

 

লাইভে গান গেয়েছেন আশিক সুমন এবং সঞ্চালনার পাশাপাশি স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি ও পাঠ অভিনয় করেছেন মনি পাহাড়ী। অনুদানের অর্থ দিয়ে ৩১.০৩.২০২০ থেকে আজ সোমবার (১১ মে) পর্যন্ত রাঙামাটির ১০টি উপজেলার ৩০০টি পরিবারকে কিছু নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মাধ্যমে সহায়তা দিয়েছেন তারা। করোনা সংকটকালে এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পরামর্শ দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন এই শিল্পী দম্পতি। বিভিন্ন এলাকায় সহযোগিতা পৌঁছে দিতে সহায়তা করছে থিয়েটারকর্মী ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ। ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো করার পর দেশ বিদেশ থেকে বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ তাঁদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে নিয়মিত সংযুক্ত থাকছেন শো এর সাথে।

এ বিষয়ে আশিক সুমন বলেন, “বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ সকলে নিজ নিজ জায়গা থেকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করে যাচ্ছেন। তারপরও পাহাড়ের মানুষের টানে যাঁরা হাত বাড়িয়েছেন তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। অনেকে কাছাকাছি বিকাশ না থাকায় ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও সহায়তা করতে পারছেন না। কেউ কেউ ঘর থেকে বের হতে পারছেন না বলে নিজ বিকাশে যতটুকু ছিল সবটুকু দিয়েছেন। যাঁরা অনুদান দিয়েছেন তাঁদের মধ্যে কয়েকজন পরবর্তীতে আরও সহায়তা দিতে উৎসাহ প্রকাশ করেছেন। আমরা নিয়মিতভাবে সংকট চলাকালীন এই শো করে যাব এবং যখন যতটুকু পাব সেটুকু দিয়ে মানুষকে সহযোগিতা করে যাব।”

তিনি আরো বলেন, আমরা মনে করি এক পরিবারকে অনেক কিছু না দিয়ে অনেক পরিবারকে অল্প করে দেয়া দরকার। যাতে কেউ অনেক খাচ্ছে আর কেউ পাচ্ছেই না, এমনটা যেন না হয়। প্রয়োজনে আবার দেব। এখনও যে জায়গাগুলোতে সহযোগিতা পৌঁছেনি সেখানটায় পৌঁছানোর চেষ্টা করছি আমরা। সরকার, প্রশাসন এবং অন্য অনেকে চেষ্টা করছে তাদের মত করে।। আমরা করছি শিল্পের জায়গাটা নিয়ে ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো এর মাধ্যমে। কোনো কোনো সংগঠন করোনা পরবর্তীতেও তাঁদের সাথে  কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছেন তারা। ভেবেছিলেন ছোট্ট করে ১০-২০ টা পরিবারকে সহায়তা করবেন। এখন সেটা ৩০০ তে পৌঁছেছে। সম্পূর্ণ অর্থ আসছে লাইভ শো থেকে। একদিন, দু'দিন পর নিয়মিত শো করছেন তারা। মাত্র ১ মাসের কিছু বেশি সময়ে ১৪টি শো করেছেন তারা।

মনি পাহাড়ী বলেন, রাঙামাটিতে বিভিন্ন জাতিসত্তার মানুষ বসবাস করে। আমরা ছোট্ট করে হলেও সকলের কাছে পৌঁছাতে চাই। এ পর্যন্ত আমরা অহমিয়া, বম, পাংখোয়া,  মারমা, খিয়াং, তঞ্চঙ্গ্যা, ত্রিপুরা, রাখাইন, চাকমা ও বাঙালি পরিবার এর কাছে ছোট্ট উপহার পৌঁছে দিয়েছি। এরপর গুর্খা, কুকি, খুমি জনগোষ্ঠীর কাছেও পৌঁছাতে চাই ফেসবুক লাইভ চ্যারিটি শো এর মাধ্যমে।

যাঁরা আর্থিক অনুদান না দিয়েও নৈতিক সমর্থন দিচ্ছেন, লাইভে যুক্ত থেকে অনুপ্রাণিত করছেন তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এই দুই শিল্পী। লাইভের দুটি শোতে কিবোর্ডে মিউজিক পরিবেশন করে মধুরা তিতির ফাল্গুন। ১০ বছর বয়সী ছোট্ট শিশুর এ পরিবেশনা ও অংশগ্রহনে মুগ্ধ হয়েছে দর্শক। সহযোগিতা পৌঁছানোর বিষয়ে পরামর্শ প্রদানের জন্য রাঙামাটির মাননীয় জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। ভিন্নধর্মী ভাবনা এবং সময়োপযোগী পদক্ষেপের জন্য মানুষের মনে অল্প সময়ের মধ্যেই যে আলোড়ন তৈরি হয়েছে সেটি অব্যাহত থাক এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর