• সোমবার   ০৬ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২২ ১৪২৬

  • || ১২ শা'বান ১৪৪১

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে হোম কোয়ারেন্টাইনে ১৮৬ জনের মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছে ১৩৬ জন, বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৫০ জন কাপ্তাই নৌ-বাহিনী ঘরে ঘরে পৌঁছে দিল ত্রাণ সামগ্রী বাঘাইছড়িতে কাচালং নদীতে গোসল করতে নেমে এক পাহাড়ী মেয়ে নিখোঁজ কাপ্তাইয়ে ইউএনও এবং সেনাবাহিনীর গাড়ী দেখে পালিয়ে গেল দোকানীরা
১৫০৪

রাঙামাটি বনবিভাগের প্রধান ৪টি অফিস আগুনে পুড়ে ছাই

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২০  


রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ- রাঙামাটি পার্বত্য চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগ, উত্তর বন বিভাগ, অশ্রেণী ভূক্ত বনাঞ্চল বিভাগ ও ঝুম নিয়ন্ত্রণ বন বিভাগের প্রধান কার্যালয়ে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। রবিবার (১৫ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জেনারেটরের বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। পুড়ে গেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বন বিভাগের দীর্ঘ বছরের নথিপত্র। 

অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে রাঙামাটি ও কাউখালী উপজেলার ফায়ার স্টেশনের ২টি ষ্টেশনের ৭ ইউনিট প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে কেউ হতাহত হয়নি। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে অগ্নিকান্ডে প্রায় ৪টি অফিসের ২ কোটি টাকার ও বেশী ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে।



রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিস উপ-পরিচালক রতন কুমার নাথ জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে আমাদের অনেক বেগ পেতে হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের রাঙামাটি ও কাউখালীর দুটি স্টেশনের ৭ টি ইউনিট প্রায় দেড় ঘন্টার ও বেশী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। তবে এখনো পর্যন্ত আগুন নেভানো সম্ভব হয়নি। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নেভানো কাজে এখনো নিয়োজিত রয়েছে। প্রাথমিক ভাবে আমরা কোন তদন্ত করার সুযোগ পায়নি। পরে তদন্ত করে জানা যাবে।

রাঙামাটি ফরেস্ট অফিসের কর্মকর্তাদের একটি সূত্র জানায়, সকাল থেকে যথারীতি সকলেই অফিস আসে এবং বিদ্যুৎ না থাকায় জেনারেটর দিয়ে কম্পিউটারসহ বিভিন্ন বৈদুতিক সরঞ্জাম চালানো হচ্ছিল। এ সময় বৈদ্যুতিক শট সার্কিটের কারণে আগুন ধরে যায়। আমরা তাৎক্ষনিক আগুন নেভানোর চেষ্টা চালালেও অফিস ঘর দীর্ঘদিনের পুরনো এবং দীর্ঘ বছরের কাগজ ও ফাইল পত্র থাকায় আগুন মুহুর্তেও মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে কাউখালী ফায়ার সার্ভিসের গাড়ীও এসে যোগ দেয়। প্রায় ১ ঘন্টার বেশী সময় চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

ঘটনার খবর পেয়ে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ, রাঙামাটি সদর জোনের জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মাঈন উদ্দিন পিএসসি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তাপস রঞ্জন ঘোষসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর