ব্রেকিং:
রাঙামাটিতে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র পেল ৫৩ জন
  • মঙ্গলবার   ৩১ মার্চ ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৬ ১৪২৬

  • || ০৬ শা'বান ১৪৪১

সর্বশেষ:
ত্রাণ ও দূর্যোগ মন্ত্রনালয়ের অর্থায়ানে জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় বাঘাইছড়িতে ত্রাণ পেলো ১৩ শত পরিবার বাঘাইছড়ি সাজেকে আবারো বেড়েছে হামের প্রকোপ ১১ গ্রামে আক্রান্ত দেড় শতাধিক শিশু রাঙামাটিতে তৎপর জেলা প্রশাসন, ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও সেনাবাহিনী কাপ্তাইয়ের রাইখালী বাজার সংলগ্ন পাহাড়ে আগুন কাপ্তাইয়ে অসহায়দের পাশে একজন এন আই চৌধুরী রাঙামাটি পৌর এলাকার মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন পৌর মেয়র রাঙামাটি সদর উপজেলার বন্দুক ভাঙ্গার দুর্গম পাহাড়ী গ্রামের মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পরিকল্পনায় করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে জনসতেনতামূলক জেলার ১৫টি স্থানে হাত ধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন দূর্গম মগবানে কর্মহীন মানুষের মাঝে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ত্রাণ সহায়তা
১৪৫৪

সড়কে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ৩৬টি দোকানপাট উচ্ছেদ

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২০  


নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে রাঙামাটি শহরের অন্যতম বাণিজ্যিক কেন্দ্র বনরুপার ফরেষ্ট অফিস সড়কে অবৈধভাবে গড়ে উঠা অস্থায়ী ৩৬টি দোকানপাট উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

আজ শনিবার (০১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাঙামাটির বহুল আলোচিত ও এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবীর পরিপেক্ষিতে ফরেস্ট রোডের উপর অবৈধ দখলদার দোকান উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন, বন বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসন।

সকালে ফরেষ্ট রোডে উচ্ছেদ অভিযানে এসময় অবৈধভাবে সড়কের পাশে অস্থায়ী ভাবে গড়ে তোলা ৩৬টি দোকান ভেঙে দেওয়া হয়। এসময় উচ্ছেদ অভিযানে জেলা প্রশাসনের  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উত্তম কুমার দাশ, মোঃ ইসলাম উদ্দিন, মোঃ বোরহান উদ্দিন মিঠু ও অঞ্জন কুমার দাশসহ রাঙামাটি বন বিভাগের কর্মকর্তা ও পৌরসভার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উচ্ছেদ অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উত্তম কুমার দাশ জানান, দীর্ঘদিন ধরে এই ফরেষ্ট রোডের দুই পাশে অস্থায়ীভাবে বসা অবৈধ দখলকারীদের জন্য এই রোডে জনসাধারণের চলাচল ও যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। আর ফরেষ্ট কলোনী এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি এই ফরেস্ট সড়কটি দখল ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে ও ফুটপাত দখলমুক্ত করতে রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। আর আমাদের এই অভিযান নিয়মিত জনগনের দূর্ভোগ কমাতে অব্যাহত থাকবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন বলেন, মুজিব শত বর্ষ উপলক্ষে উচ্ছেদকৃত জায়গায় আমরা দৃষ্টিনন্দন ও শোভা বন্ধন হিসেবে গড়ে তুলবো। যাতে করে এই সড়ককে চলাচলরত এলাকার মানুষ নির্বিঘ্ন চলাচল করতে পারে।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর