ব্রেকিং:
রাঙামাটিতে নতুন করে আরো ১ নার্স করোনায় আক্রান্ত, এই নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬১ জন এসএসসি: রাঙামাটিতে পাশের হার ৭৬.৮৭%, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৪৩ জন
  • সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
বাঘাইছড়িতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চলছে ডিমওয়ালা মা মাছ ধরার মহোৎসব রাইখালীতে আরও ১ হাজার পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার কাপ্তাইয়ের রাইখালীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক নার্সের মৃত্যু লংগদুতে উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার করোনা পজেটিভ রাঙামাটিতে ৬০ লিটার চোলাই মদ সহ আটক ২ কাউখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত রাঁধুনী করোনায় আক্রান্ত
১৭৯৩

হাসপাতালে নেই আই‌সিইউ: প্রধানমন্ত্রীর দৃ‌ষ্টি আকর্ষন করলেন ডিসি

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২০  

ছবি:-সংগৃহীত 


রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ- আমাদের রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ থাকলেও ইনটেনসিভ কেয়ার ইউ‌নিট (আইসিইউ) নেই। এটা খুবই প্রয়োজন হয়ে পড়েছে বলে প্রধানমন্ত্রীকে দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ।

মঙ্গলবার (৭ মার্চ) দেশের করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের ১৫টি জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং জন প্রতিনিধিদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে রাঙামা‌টির সাথে প্রধানমন্ত্রী যুক্ত হলে রাঙামা‌টির জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর র‌শিদ রাঙামা‌টি হাসপাতালে আইসিইউ এর বিষয়‌টি তুলে ধরেন।

এর আগে জেলার সা‌র্বিক বিষয় তুলে ধরে জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর র‌শিদ বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শুরু থে‌কে জেলা প্রশাসন, সেনাবা‌হিনী, পু‌লিশ, স্বাস্থ্য বিভাগ, জনপ্র‌তি‌নি‌ধি, রাজ‌নৈ‌তিক ব্য‌ক্তিব‌র্গের সমন্বয়ে আমরা জেলা উপজেলা এমন‌কি ইউ‌নিয়নে কমি‌টি গঠন করে কাজ করে যা‌চ্ছি। জেলা ও উপজেলার প্রতিটি গ্রামে হতদরিদ্রদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়েছে। 

রাঙামাটি জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রান্ত কোন ‌রোগী পাওয়া যায়‌নি। আমরা এ পর্যন্ত ১৯৭ জন মান‌ুষকে হোম কোয়ারেন্টিনে রেখেছি, যার ম‌ধ্যে ১৫৪ জনকে স্বাস্থ্য বিভাগ ছাড়পত্র দিয়েছে। বর্তমা‌নে ৪৩ জন হোম কোয়ারেন্টিনে আছে বলে জানান তিনি।

তি‌নি আরো বলেন, জনসচেতনতা বৃ‌দ্ধি, সামা‌জিক দুরত্ব, সামা‌জিক সুরক্ষা, স্বাস্থ্য বি‌ধি এবং বাজার প‌রি‌স্থি‌তি, বাজারে পণ্য সরবরাহ ঠিক রাখ‌তে ও হোম কোয়ারেন্টিনে নি‌শ্চিত করতে মাঠ প্রশাসনে যারা আছে, তারা নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

করোনা মোকাবেলায় প্রস্তু‌তি‌র বিবরণ তুলে ধ‌রে ডি‌সি বলেন, জেলা ও উপজেলায় ১৫০টি আইসোলেশন বেড প্রস্তুত রেখেছি। জেলা সদরে রোগীদের পরিবহণের জন্য ৪টি এ্যাম্বুলেন্স এবং নৌ-প‌থ সং‌শ্লিষ্ট উপজেলাগুলোর জন্য ৪টি স্পিডবোট প্রস্তুত রেখেছি। আমার এ জেলার কর্মহীন, দিনমজুর, শ্র‌মিক এবং যাদের ঘরে খাদ্য প্রয়োজন তাদের প্রত্যেকের ঘরে খাদ্য পৌছে দেয়ার ব্যবস্থা করেছি। আমরা এ পর্যন্ত ৩২ হাজার ৮ শত ৮০ প‌রিবারকে খাদ্য সহায়তা পৌছে দিতে সক্ষম হয়েছি।

‌ভি‌ডিও কনফারেন্সে এ‌দিন জেলা প‌রিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, ডিজিএফআই'র কর্ণেল জিএস কর্ণেল মোঃ ইমরান ইবনে এ রউফ, পু‌লিশ সুপার আলমগীর ক‌বির, সি‌ভিল সার্জন বিপাশ খীসা, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীসহ বি‌ভিন্ন দপ্ত‌রের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপ‌স্থিত ছিলেন।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি
রাঙ্গামাটি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর