আলোকিত রাঙামাটি
ব্রেকিং:
রাঙামাটির কাঠালতলী এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
  • শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২২ ১৪২৭

  • || ২১ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে নতুন করে আরো ৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত- ১২৭১, মোট সুস্থ- ১২২৩, মোট মৃত্যু- ১৬ জন।

১৩ দিন পর বিকল্প সড়কে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২১  

ছবিঃ- আলোকিত রাঙ্গামাটি

ইমতিয়াজ ইমন রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ- রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি প্রধান সড়ক কুতুকছড়িতে বেইলি ব্রীজ ভেঙ্গে পড়ার ১৩ দিন পর সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে নির্মিত বিকল্প সড়ক দিয়ে সোমবার (২৫ জানুয়ারী) সকাল থেকে রাঙামাটি- খাগড়াছড়ি-নানিয়ারচর রুটের যানবাহন চলাচল শুরু করেছে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ব্রিগেডের আওতাধীন ২০ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্যাটেলিয়ান কুতুকছড়ি খালের উপর ১৪০ ফুটের বেইলি ব্রীজ স্থাপনসহ ২৪০ মিটার দীর্ঘ সংযোগ সড়ক নির্মান করেছে। আর ভেঙ্গে পড়া রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি প্রধান সড়কে কুতুকছড়ি খালের উপর পুর্ণাঙ্গ সেতু নির্মানের কাজও শুরু করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

উল্লেখ্য, গত ১২ জানুয়ারী  অতিরিক্ত পাথর বোঝাই একটি ট্রাক কুতুকছড়ি বাজার সংলগ্ন বেইলি ব্রীজ পার হতে গিয়ে ব্রীজ ভেঙ্গে কুতুকছড়ি খালে পড়ে গেলে নদীর পানিতে ডুবে ড্রাইভারসহ ঘটনাস্থলে তিন জন মারা যায়। ব্রীজ ভেঙ্গে পড়ায় বন্ধ হয়ে যায় রাঙামাটি-মহালছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়ক ও নানিয়ারচর উপজেলার সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ। এতে চরম দুর্ভোগে পড়ে দুই জেলাসহ নানিয়ারচর উপজেলার সাধারণ যাত্রী ও ব্যবসায়ীরা। গত ৬ দিন ধরে ভেঙ্গে যাওয়া ব্রীজের পাশে তৈরিকৃত বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার ও মালামাল পরিবহন করতে হয়েছে চলাচলরত মানুষকে। সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে দ্রুত বিকল্প সড়ক নির্মান করে দেয়ায় খুশী সাধারণ মানুষ ও যাত্রীরা। 

রাঙামাটি সড়ক ও জনপথ বিভাগ নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহ আরেফিন জানান, জনদূর্ভোগ সারাতে দ্রুততম পদক্ষেপে সেনাবাহিনীর ৩৪ ব্রিগেডের ২০ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্যাটেলিয়ান বিকল্প হিসেবে নতুন সড়ক তৈরিতে ১৪০ ফুট দৈর্ঘ আরেকটি বেইলি ব্রীজসহ ২৪০ মিটারের সংযোগ সড়ক নির্মাণ করে আজ সকাল থেকে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি-নানিয়ারচর রুটের যানবাহন চলাচল শুরু করেছে। তবে ৫ টনের অধিক মালামাল পরিবহনের ট্রাক এই পথে যাতায়াত করতে পারবে না। 

তিনি আরো জানান, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ব্রিগেডের আওতাধীন ২০ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্যাটেলিয়ানকে ধন্যবাদ জানায় তারা। রাঙামাটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের সহায়তায় ১৫ জানুয়ারী থেকে এই বিকল্প সড়কের নির্মাণ কাজে আমাদের সার্বিক সহযোগিতার মাধ্যমে দ্রুততম সময়ে মধ্যে এই বিকল্প সেতুটি তারা চালু করেছে। আর ভেঙ্গে যাওয়া মূল সেতুটির কাজও অনেক দূর এগিয়ে গেছে। আমরা আশা করছি,  এক সপ্তাহের মধ্যে মূল সেতু দিয়েই গাড়ি চলাচল শুরু করতে পারবে। আর এলাকাবাসীদের একটি দাবী আছে স্থায়ী সেতু করার জন্য। সেই লক্ষ্যে ৮১ মিটার ব্রিজের নকশা পেয়ে গেছি। আমরা আশা করছি যে, সরকারী প্রক্রিয়া শেষ করে একটি পাকা সেতুর কাজ দ্রুত সময়ের মধ্যে শুরু করা সম্ভব হবে।
 

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি