• ২৭ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৮

  • || ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নগর জুড়ে

রাঙামাটিকে রেড জোন ঘোষণার পরও সচেতনতা নেই মানুষের

 আপডেট: ১৭:৪৫, ২৩ জানুয়ারি ২০২২

রাঙামাটিকে রেড জোন ঘোষণার পরও সচেতনতা নেই মানুষের
ফাইল ছবি

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ফের ঊর্ধ্বমুখী। গত এক সপ্তাহে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে শনাক্তের হার। এরই মধ্যে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার বিকেলে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির হালনাগাদ তথ্য প্রকাশ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেখানে সংক্রমণের উচ্চঝুঁকি, মধ্যম ঝুঁকি ও কম ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করা হয়।

অধিদপ্তরের তথ্যমতে, ঢাকা ও রাঙামাটি জেলা সংক্রমণের রেড জোন অর্থাৎ উচ্চঝুঁকি রয়েছে। এছাড়া হলুদ জোন বা মধ্যম ঝুঁকির তালিকায় রয়েছে ৬ জেলা এবং কম ঝুঁকি অর্থাৎ সবুজ জোনে রয়েছে দেশের ৫৪ জেলা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উচ্চঝুঁকিতে থাকা ঢাকায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে করোনা শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৯০ শতাংশ এবং রাঙামাটিতে শনাক্তের হার ১০ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৬.৬৭%। গত এক সপ্তাহে ২১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৮ জনের। শনাক্তের হার ৮.২১%।

এদিকে, রাঙামাটিকে রেড জোন ঘোষণা করা হলেও সাধারণ মানুষের মধ্যে নেই কোনও সচেতনতা। অনেকেই এই বিষয়টি জেনে বিস্ময় প্রকাশও করেছেন। তবে স্বাস্থ্য বিধি মানাতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত প্রতিদিন জেলার জনবহুল এলাকায় অভিযান পরিচালনা করছে।

আলোকিত রাঙামাটি

মন্তব্য করুন: