• রাঙামাটি

  •  রোববার, অক্টোবর ২, ২০২২

নগর জুড়ে

প্রশাসনের আশ্বাসে রাঙামাটিতে অটোরিকশা শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

 আপডেট: ১৭:৫৮, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

প্রশাসনের আশ্বাসে রাঙামাটিতে অটোরিকশা শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার

প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধির আশ্বাসে রাঙামাটি শহরের অটোরিকশা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছে জেলা অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন। রবিবার (১৮ সেপ্টম্বর) বেলা ১১টায় শহরের শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে এক সমাবেশ করে সেখান থেকে এই ঘোষণা দেন সংগঠনটির নেতারা।

এ সময় রাঙামাটি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গত শুক্রবার চাঁদার টোকেন না থাকায় একটি অটোরিকশা পুড়িয়ে দেয় জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা। তার একদিন না পেরুতেই শনিবার রাতে আবারো জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা আরেক শ্রমিক নেতার গাড়ি ভাঙচুর করে। এ সকল ঘটনা একমাত্র চাঁদার জন্য সন্ত্রাসীরা করছে। আমরা প্রশাসনের কাছে দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তি এবং ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূর্রণের দাবি জানাই। প্রশাসন ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আমাদেরকে সে আশ্বাস দিয়েছেন।

রাঙামাটি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি পরেশ মজুমদার জানান, আমাদের অনেক শ্রমিক ভাইকে আগেও হত্যা করেছে জেএসএস’র সন্ত্রাসীরা। কিন্তু তার বিচার আমরা পাইনি। সম্প্রতি আমাদের গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে, চাকলদেরকে মারধোর করেছে। আমরা প্রশাসন থেকে আশ্বাস পেয়েছি আমাদেরকে নিরাপত্তা দিবে এবং যে গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে সে গাড়ির ক্ষতিগ্রস্ত  চালককে স্থানীয় সংসদ সদস্য নতুন গাড়ি ক্রয় করে দিবে। তাই আমরা আমাদের এ ধর্মঘট প্রত্যাহার করছি।

সভায় উপস্থিত থেকে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সহযোগিতা ও আশ্বাসের কথা জানালেন, রাঙামাটি জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুর আলমসহ রাঙামাটি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (১৬ সেপ্টম্বর) দুপুরে রাঙামাটির আসামবস্তি-কাপ্তাই সড়কে দুই নাম্বার আগার বাগান এলাকায় চাঁদার টোকেন না থাকায় জেএসএস (সন্তু)’র একদল সন্ত্রাসী অটোরিকশা চালক কামালকে মারধর ও তার অটোরিকশাটি পুড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকালে তিন দফা দাবিতে বিক্ষোভ করে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন রাঙামাটি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা।

এ ঘটনার ৪৮ ঘন্টা আল্টিমেটামের মধ্যে গতকাল শনিবার (১৭ সেপ্টম্বর) রাত ১০টার দিকে রাঙামাটির আসামবস্তি-রাঙ্গাপানি সড়কে আবারও আরেক সিএনজি ভাঙচুর করে জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা। এ সময় সিএনজি চালক ও রাঙামাটি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকারী সদস্য আবুল হোসেনকে মারধর করে তাঁরা।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে সিএনজি চালিত অটোরিকশা হতে চাঁদা আদায় করে একটি টোকেন প্রদানের মধ্য দিয়ে পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস চাঁদাবাজি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। দুই দিনেরই ঘটনাস্থল পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন (সন্তু) লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সম্পৃক্ত ছিলো বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়।

মন্তব্য করুন: