• রাঙামাটি

  •  শনিবার, জানুয়ারি ২৯, ২০২২

জাতীয়

‘বাঙালীর বীরত্বের চিত্রগাঁথা’

 প্রকাশিত: ১৪:৩০, ২৬ নভেম্বর ২০২১

‘বাঙালীর বীরত্বের চিত্রগাঁথা’

মুক্তিযুদ্ধের বিরল ছবি দেখছেন তথ্যমন্ত্রী।


একাত্তরে বাঙালীর গৌরবময় ইতিহাস নতুন প্রজন্মের  কাছে তুলে ধরতে রাজধানীতে শুরু হয়েছে ব্যতিক্রমী আলোকচিত্র প্রদর্শনী। মুক্তিযুদ্ধের বিরল শতাধিক আলোকচিত্র নিয়ে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার ১ নম্বর গ্যালারিতে শুরু হয়েছে ‘বাঙালীর বীরত্বের চিত্রগাঁথা’ শীর্ষক প্রদর্শনী। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের আয়োজনে ও নৌবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় তিন দিনের এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয় বৃহস্পতিবার।

প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া প্রতিটি ছবির সঙ্গে জড়িয়ে আছেন বাঙালি জাতিসত্তার জন্ম ইতিহাস। আছে একাত্তরের রণাঙ্গনে শত্রুর বিরুদ্ধে অকুতোভয় মুক্তিযুদ্ধাদের লড়াইয়ের দৃশ্য। উপস্থাপিত হয়েছে পাকিস্তানি বাহিনীকে পরাজিত করতে জলে-স্থলে লড়াইয়ের ছবি। আছে মাতৃভূমিকে মুক্ত করতে পুরুষের পাশাপাশি রণাঙ্গণে ঝাঁপিয়ে পড়া নারীদের সশস্ত্র সংগ্রামের চিত্র। রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণের ছবি। এই বীরত্বগাথার উল্টোপিঠে হানাদারদের সংঘটিত বর্বরতার চিত্রও বাদ যায়নি। ভিটেমাটি ছেড়ে শরণাথীদের দেশত্যাগের ছবিগুলো হয়ে উঠেছে বাঙালির আত্মত্যাগের ধারাভাষ্য।

বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী  ড. হাছান মাহমুদ। উদ্বোধনের পরে তিনি প্রদর্শনীটি পরিদর্শন করেন। এসময় সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লে. জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নুরুল হুদাসহ সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় প্রদর্শনী উপলক্ষে প্রকাশিত ফোলিওর মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।
লে. জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধকালীন বাঙ্গালীর বীরত্বের গৌরব উজ্জল ইতিহাস নতুন প্রজন্মের নিকট তুলে ধরতেই এই চিত্র প্রদর্শনীয় আয়োজন করা হয়।

তিন দিনের এই প্রদর্শনী চলবে শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

আলোকিত রাঙামাটি

মন্তব্য করুন: