• ২৭ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৮

  • || ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্সে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক

 প্রকাশিত: ১০:৩১, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্সে ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক

ফাইল ছবি


আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে পেশাদার মোটরযান চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু ও নবায়নকালে প্রার্থীর আবেদনপত্রের সঙ্গে সরকারি হাসপাতাল থেকে ডোপ টেস্ট সনদ দাখিল করতে হবে।

বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত এক পরিপত্র জারি করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নকল্পে আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে পেশাদার মোটরযান চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু ও নবায়নকালে প্রার্থীর আবেদনপত্রের সঙ্গে সরকারি হাসপাতাল কর্তৃক সম্পাদিত ডোপ টেস্ট সনদ দাখিল করতে হবে। ডোপ টেস্ট সনদ পজিটিভ হলে (মাদক সেবনের আলামত পাওয়া গেলে) বা এতে কোনো বিরূপ মন্তব্য থাকলে সেক্ষেত্রে পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু/নবায়ন করা যাবে না।

এই ডোপ টেস্ট সারাদেশে সব পর্যায়ের সরকারি হাসপাতালে এবং ঢাকা মহানগরীর ক্ষেত্রে ছয়টি  প্রতিষ্ঠানে করা যাবে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার, জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান (নিটোর) এবং কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল।

আরো বলা হয়, পেশাদার মোটরযান চালকদের ডোপ টেস্ট করার জন্য বিআরটিএর সংশ্লিষ্ট সার্কেল অফিস থেকে সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল বা প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত ফরমে (পরিশিষ্ট-গ) অনুরোধ জানিয়ে পত্র পাঠাতে হবে। ডোপ টেস্ট সম্পাদনকারী হাসপাতাল বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ডোপ টেস্ট সনদ অনলাইনে (ই-মেইল/ইলেকট্রনিক পদ্ধতি) সংশ্লিষ্ট বিআরটিএর সহকারী পরিচালক(ইঞ্জি.)/লাইসেন্সিং কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাবে। মূলকপি প্রার্থীর কাছে হস্তান্তর করবে। প্রার্থী ঐ ডোপ টেস্ট সনদ পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু/নবায়নকালে আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করে দাখিল করবেন।

বিআরটিএর সংশ্লিষ্ট সহকারী পরিচালক /লাইসেন্সিং কর্তৃপক্ষ ডোপ টেস্ট সনদ অনলাইনে যাচাইপূর্বক পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করবে।

আলোকিত রাঙামাটি

মন্তব্য করুন: