• রাঙামাটি

  •  মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০২২

পার্বত্য চট্টগ্রাম

পাহাড়ে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় স্থাপিত হবে এপিবিএন পুলিশ ক্যাম্প: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ

 আপডেট: ১০:৫১, ২৬ মে ২০২২

পাহাড়ে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় স্থাপিত হবে এপিবিএন পুলিশ ক্যাম্প: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত বিশেষ সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি:- আলোকিত রাঙ্গামাটি

পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি শৃঙ্খলার শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে তিন পার্বত্য জেলায় সেনাবাহিনীর প্রত্যাহারকৃত ক্যাম্পে এপিবিএন এর পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বুধবার (২৫ মে) রাঙামাটি জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এক বিশেষ আইনশৃঙ্খলা সভা শেষে সাংবাদিকদের দেয়া এক ব্রিফিং এ এই কথা জানিয়েছেন তিনি। রাত ৮ টায় শুরু হওয়া এই সভা শেষ হয় রাত ১০ টায়। 

সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা), বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ মহাপরিচালক মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদ, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজির আহমেদ, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এর মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ও চট্টগ্রামের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাইফুল আবেদীন, রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, পার্বত্য চট্টগ্রামের সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, তিন জেলার জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারগণ এ সভায় অংশপ্রহণ করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বছর দুয়েক আগে অনুষ্ঠিত এক সভায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রথাগত নেতৃত্ব ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে আলোচনায় পাহাড়ে অস্ত্রবাজি, চাঁদাবাজি, বিভিন্ন দল উপ-দলের সংঘাত নিরসনসহ বিভিন্ন পরামর্শ ও সুপারিশের প্রেক্ষিতে সভায় পার্বত্য শান্তিচুক্তির আলোকে সেনাবাহিনীর প্রত্যাহারকৃত ক্যাম্পের জায়গায় এপিবিএন মোতায়েনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন। সভায় পার্বত্য শান্তিচুক্তি, ভূমি কমিশনসহ অন্যান্য বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি আরো জানান, পার্বত্য শান্তিচুক্তির অন্যান্য বিষয়ও ধীরে ধীরে বাস্তবায়িত হচ্ছে। পাহাড়ের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় এপিবিএন ও পুলিশই যথেষ্ট বলে মন্তব্য করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রয়োজন হলে র‌্যাব ও আসবে, পুলিশও থাকবে। আমাদের পুলিশ এখন আগের চেয়েও অনেক বেশী সক্ষম।’

এদিকে, ‘এই বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা)।’

মন্তব্য করুন: