• রাঙামাটি

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

পার্বত্য চট্টগ্রাম

মহালছড়িতে উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক বাঙ্গালীর বসতঘর ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

 প্রকাশিত: ১৮:৩৫, ২১ নভেম্বর ২০২২

মহালছড়িতে উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক বাঙ্গালীর বসতঘর ভাংচুর

খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম কালাপাহাড় নামক স্থানে বাঙ্গালীর কবিলতের জায়গার উপর নির্মিত একটি ঘর ভাংচুর করেছে উপজাতি সন্ত্রাসীরা। 

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কালাপাহাড় এলাকার আমজাদ হোসেনের পুত্র মোঃ জাহেদ তার শ্বশুর মৃত্যুর পর শ্বশুরের জায়গাতে একটি বসতঘর নির্মাণ করে গত ১৫ নভেম্বর।

এদিকে, সোমবার (২১ নভেম্বর) আনুমানিক দুপুর ১২টার সময় উপজাতি সন্ত্রাসী সংগঠনের সহযোগীতার ২৫০ নং লেমুছড়ি মৌজার বদনালা গ্রামের বাসিন্দা দেবপ্রিয় চাকমার নেতৃত্বে বাঙ্গালী মো. জাহেদের বসতঘরটি ভাংচুর করার অভিযোগ পাওয়া যায়।

উক্ত জায়গাটি পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি ১৯০০ সালের রেগুলেশন এর প্রথাগত নিয়মের দোহাই দিয়ে বাঙ্গালীর কবিলত জায়গাটি দেবপ্রিয় চাকমা দাবি করে আসছে। দেবপ্রিয় চাকমা বড়নালা গ্রামের বাসিন্দা মৃত রাজ চন্দ্র চাকমার পুত্র। উক্ত জায়গাটি তার পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করলেও তার কাছে বৈধ কাগজপত্র নেই। 

বাঙ্গালীর বসতঘর ভাংচুরের পর স্থানীয় প্রশাসন দায়সারাভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বাঙ্গালীদের কোন প্রকার আন্দোলন করতে নিষেধ করে। আগামীকাল মাইসছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজাই মারমা বিষয়টি নিয়ে বসবে বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য যে, এর আগেও মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় প্রায় সময়ই উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক বাঙ্গালীদের জায়গা বেদখলের ঘটনা ঘটছে। গত ৫ জুলাই উক্ত ইউনিয়নের জয়সেন পাড়া এলাকায় বাঙ্গালীদের জায়গাতে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ করে।

মন্তব্য করুন: