• রাঙামাটি

  •  শনিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২২

স্বাস্থ্য

পাকস্থলীর পীড়া  উপশমককারী ‘স্প্রাইট’!

 আপডেট: ০০:০০, ৩০ নভেম্বর ১৯৯৯

পাকস্থলীর পীড়া  উপশমককারী ‘স্প্রাইট’!

কোমল পানীয়ের পছন্দের তালিকায় অনেকেরই শুরুর দিকে থাকে স্প্রাইট। এটি হলো কোকাকোলা কোম্পানির কোমল পানীয় পরিবারের নবীনতম সদস্য, আজ থেকে প্রায় অর্ধ শতাব্দী আগে বাণিজ্যিকভাবে এর উৎপাদন শুরু হয়। কোক ও পেপসি এর মত রংযুক্ত পানীয়ের বদলে অনেকেই স্প্রাইট বা সেভেন আপ এর মত ড্রিংকস বেছে নেন।

আজ থাকছে বিশ্বখ্যাত কোমল পানীয় ব্র্যান্ড স্প্রাইট সম্পর্কে অজানা ও চমকপ্রদ কিছু তথ্য-

১। স্প্রাইট এর প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান হলো দ্য কোকা কোলা কোম্পানি।

২। ১৯৫৯ সালে পশ্চিম জার্মানিতে সর্বপ্রথম 'ফানটা ক্লারে জিট্রন' নামে স্প্রাইট প্রস্তুত করা শুরু হয়। ১৯৬১ সালে আমেরিকার বাজারে এসে পানীয়টি স্প্রাইট নাম ধারণ করে।

৩। কোমল পানীয় হিসেবে পেপসিকো কোম্পানির সেভেন আপের সফলতায় ঈর্ষান্বিত হয় কোকা কোলা কোম্পানি বাজারে স্প্রাইটকে নিয়ে আসে। এটিই ছিল স্প্রাইট তৈরির পেছনের রহস্য ।

৪। পৃথিবী জুড়ে ১৯০ টিরও বেশি দেশে স্প্রাইট পাওয়া যায় !

৫। ২০১২ সালে ফ্রান্সে স্প্রাইটের প্রস্তুত প্রণালীতে পরিবর্তন আনা হয়। এতে বিদ্যমান ক্যালরির পরিমাণ কমাতে পানীয়টিতে চিনির ব্যবহার ৩০ শতাংশ কমিয়ে মিষ্টতা আনার জন্য স্টিভিয়া ব্যবহার করা হয়। পরবর্তীতে যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডেও স্প্রাইট তৈরির এ রেসিপি অনুসরণ করা হয়। ধারণা করা হয় স্টিভিয়াতে চিনির তুলনায় কম ক্যালোরি থাকে। এটা ক্রিসেনথিমাম গোত্রের উদ্ভিদ। এ উদ্ভিদের জন্মস্থান হলো প্যারাগুয়ে।

৬। বিশ্বজুড়ে স্প্রাইট এর ১৭ টি ভিন্ন ভিন্ন ফ্লেভার প্রচলিত আছে! এরা হলো- স্প্রাইট জিরো, স্প্রাইট রিমিক্স, স্প্রাইট ব্লাস্ট, স্প্রাইট আইস, স্প্রাইট ডুও, স্প্রাইট সুপার লেমন, স্প্রাইট লেমন লাইম হার্ব, স্প্রাইট রিচার্জ, স্প্রাইট গ্রীন, স্প্রাইট থ্রিজি, স্প্রাইট ক্যানবেরি, স্প্রাইট সিক্স মিক্স এবং স্প্রাইট ট্রপিকাল!

৭। কিছু কিছু পাকস্থলীর পীড়ায় স্প্রাইট বেশ ভালো উপশম দিয়ে থাকে, বিশেষ করে পেটে যখন গ্যাস হয় তখন। স্প্রাইট এর মত কোমল পানীয়গুলো ঢেকুর তুলতে সাহায্য করে পেট থেকে অবাঞ্ছিত গ্যাস বের করে দেয়।

৮। স্প্রাইট তাদের ফ্লেভার এর নাম দিয়েছে লাইমন, যা লেমন ও লাইম এর সঙ্গে সম্পৃক্ত। এটি স্প্রাইট এর একটি বেশ জনপ্রিয় বাজারজাতকরণ কৌশল!

আলোকিত রাঙামাটি

মন্তব্য করুন: