• রাঙামাটি

  •  মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২২

স্বাস্থ্য

শ্রবণশক্তি হারানোর ঝুঁকিতে ১৩৫ কোটি তরুণ-তরুণী

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্কঃ-

 প্রকাশিত: ১১:২৫, ১৮ নভেম্বর ২০২২

শ্রবণশক্তি হারানোর ঝুঁকিতে ১৩৫ কোটি তরুণ-তরুণী

হেডফোন ব্যবহার ও উচ্চস্বরের কনসার্টে উপস্থিত থাকার কারণে বিশ্বের প্রায় ১৩৫ কোটি তরুণ-তরুণী শ্রবণশক্তি হারানোর ঝুঁকিতে রয়েছে। বুধবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গবেষণায় জনস্বাস্থ্য রক্ষায় শ্রবণের প্রচলিত অভ্যাসগুলো নিয়ে তরুণদের আরো সতর্ক হওয়ার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মোবাইল এবং শ্রবণযন্ত্র উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে শ্রবণশক্তি রক্ষার বিষয়টি বিবেচনায় নেয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

চারটি দেশের ৩৩টি জরিপের ফলাফলের ভিত্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ মেডিকেল হেলথ জার্নাল।

জরিপগুলোতে ১২-৩৪ বছর বয়সী ১৯ হাজারের বেশি অংশগ্রহণকারীর কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। সেখানে দেখা যায়- ২৪ শতাংশ তরুণ-তরুণী স্মার্টফোনের মতো ডিভাইসের সঙ্গে হেডফোন ব্যবহার করার সময় অনিরাপদভাবে গান শোনার অভ্যাস করেছে। ৪৮ শতাংশ কনসার্ট বা নাইট ক্লাবের মতো বিনোদন স্থানগুলোতে অনিরাপদ শব্দের মাত্রার সংস্পর্শে গিয়েছে। ফলাফলগুলোকে একত্রিত করে গবেষণায় অনুমান করা হয়েছে যে ছয় লাখ ৭০ হাজার থেকে ১৩৫ কোটি তরুণ-তরুণী শ্রবণশক্তি হারানোর ঝুঁকিতে থাকতে পারে।

গবেষণাটির প্রধান শ্রবণ বিশেষজ্ঞ ড. লরেন ডিলার্ড বলেন, শ্রবণশক্তি না হারানোর সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে হেডফোনে ভলিউম কমিয়ে গান শোনা। তবে দীর্ঘ সময় ধরে গান শুনলেও শ্রবণশক্তি হারানোর ঝুঁকি রয়েছে।

মন্তব্য করুন: