আলোকিত রাঙামাটি
ব্রেকিং:
ইউপিডিএফ’র আস্তানায় যৌথবাহিনীর অভিযান: অস্ত্র ও গােলাবারুদ উদ্ধার
  • শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৮

  • || ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

CoronaBanner

করোনা আপডেট

২৬ নভেম্বর ২০২১

বাংলাদেশ

আক্রান্ত

২৩৯

সুস্থ

২৭৭

মৃত্যু

রাঙ্গামাটি

আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত নাই। মোট আক্রান্ত- ৪২২৭, মোট সুস্থ- ৪১৯২, মোট মৃত্যু ৩৪ জন।

অবশেষে কাপ্তাইয়ের শীলছড়িতে পাঁচ দশকের বিশুদ্ধ পানি সংকট নিরসন

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২১  

কাপ্তাইয়ের শীলছড়িতে ন্যানো ফিল্টার এবং গভীর নলকূপ স্থাপন প্রকল্প পরিদর্শনে ইউএনও মুনতাসির জাহান।

মোঃ নজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাইঃ- অবশেষে কাপ্তাইয়ের শীলছড়ি এলাকার বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসন করা হয়েছে। ফলে স্বাধীনতার প্রায় পাঁচ দশক পর এই এলাকার অধিবাসীদের বিশুদ্ধ পানির সংকট দূর হলো।

স্থানীয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কাপ্তাই উপজেলাধীন ৫নং ওয়াগ্গা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের শীলছড়ি এলাকা। উপজেলা সদর থেকে মাত্র ২ কিঃ মিঃ পূর্বে শীলছড়ি বাজার। পাশেই চেয়ারম্যান পাড়া ও ভেলাবা পাড়া। বাজারের পাশে রয়েছে শীলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কিছু বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার অফিস। শীলছড়ি বাজার, ভেলাবা পাড়া এবং চেয়ারম্যান পাড়ায় প্রায় ১শ' ৭০ পরিবারের বসবাস। আছে কিছু দোকানপাটও। পাহাড়ি-বাঙালী মিলে প্রায় ৫শ' ৫০ জন মানুষ বসবাস করছে এই এলাকায়। এখানে রয়েছে ভ্রাতৃত্ববোধ ও  সম্প্রীতি। যে ধর্মের উৎসব, পার্বন হউক না কেনো, সকলেই আনন্দচিত্তে অংশ নেয় এসব উৎসবে। কিন্ত স্বাধীনতার প্রায় পাঁচ দশক পরও এই এলাকার বাসিন্দারা কখনো পায়নি বিশুদ্ধ পানি। নদীর কিংবা ছড়ার পানি পান করে তারা এতদিন পানির চাহিদা মেটাচ্ছে। তাই নানা প্রকার রোগ বালাই লেগে থাকতো এই এলাকার শিশু, যুবক থেকে শুরু করে নানা বয়সী লোকদের। আর যারা সামর্থ্যবান তারা ২ কিঃমিঃ পথ পাড়ি দিয়ে রিক্সা, সিএনজি কিংবা ভ্যানে করে পার্শ্ববর্তী বিজিবি ক্যাম্প হতে পানি সংগ্রহ করতো।

শীলছড়ি এলাকায় বেশ কিছু রিং টিউবওয়েল ছিল। কিন্তু এলাকায় পানির স্তর নীচে নেমে যাবার কারনে রিং টিউবওয়েল দিয়ে পানি উঠে না। ফলে বছরের পর বছর নষ্ট হয়ে আছে এসব রিং টিউবওয়েল। ফলে এলাকাবাসী কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের দারস্থ হয়। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এনিয়ে খবর প্রকাশিত হলে টনক নড়ে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের। এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকটে এগিয়ে আসে কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। 

অবশেষে ওই এলাকার শীলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে গত জুন ২০২১ মাসে কাজ শুরু করা হয় ন্যানো ফিল্টারের। সরকারের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ভূ-উপরোস্থ পানি পরিশোধনের মাধ্যমে রাঙামাটি, বাগেরহাট এবং ফরিদপুর জেলায় নিরাপদ পানি সরবরাহ প্রকল্পের আওতায় চলতি জুলাই ২০২১ মাসের মাঝা মাঝি সময়ে কাপ্তাইয়ের শীলছড়িতে ন্যানো ফিল্টার নির্মাণের কাজ শেষ হয়।

পার্শ্ববর্তী কর্ণফুলি নদী হতে পানি বিশুদ্ধ করনের মাধ্যমে শীলছড়ি বাজার এলাকার ৭০টি পরিবার কে ন্যানো ফিল্টারের মাধ্যমে সুপেয় পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। ২ হাজার লিটার পানি ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ন্যানো ফিল্টারের মাধ্যমে শীলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরাও এখন থেকে বিশুদ্ধ পানি পান করতে পারবে বলে জানান, ওয়াগ্গা ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাহাবুব আলম।

তিনি আরো জানান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে শীলছড়ি খেলার মাঠ সংলগ্ন খালি জায়গায় ১৮০ ফুট গভীর নলকুপ গত জুন মাসে স্থাপন করা হয়েছে। ফলে শীলছড়ি চেয়ারম্যান বাড়ী এবং ভেলাবা পাড়ার শত শত পরিবার এখন বিশুদ্ধ পানি পান করছেন। তিনি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কৃতজ্ঞতা জানান।

ওয়াগ্গা ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মিনুপ্র মারমা এই প্রকল্প বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসন কে ধন্যবাদ জানান।

শীলছড়ি এলাকার বাসিন্দা মোঃ সরোয়ার হোসেন, সুবাইচিং মারমা, ন্যানচি মারমা, ডাঃ আবুল কাশেম, লিটন দাশ জানান, এই এলাকায় শুষ্ক মৌসুমে তীব্র পানির সংকট দেখা দিতো। স্বাধীনতার ৫০ বছরেও তারা কখনো বিশুদ্ধ পানি পায়নি। কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহানের আন্তরিকতায় আজ এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসন হয়েছে।

শীলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জগদীশ দাশ জানান, তাদের বিদ্যালয়ে ২শ' ১০ জন ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষক রয়েছে। যখন স্কুল খোলা ছিল, তখন পানির কি কষ্ট করতে হয়েছে তা বর্ণনা করার নয়। অনেক দূরে অবস্থিত বিজিবি এবং আনসার ক্যাম্প থেকে তাদের পানি সংগ্রহ করতে হতো। যখন স্কুল খুলবে তখন তারা এর সুফল পাবে।

ওয়াগ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চিরনজীত তনচংগ্যা জানান, এই প্রকল্প ২টি বাস্তবায়নের ফলে এলাকার কয়েকশ' পরিবার বিশুদ্ধ পানি পান করতে পারবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে তিনি উপজেলা প্রশাসন ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। 

কাপ্তাই উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী লিমন চন্দ্র বর্মন বলেন, সরকারের মিনি ওয়াটার সারফেস ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট প্রকল্পের আওতায় শীলছড়িতে এই ন্যানো ফিল্টার প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এছাড়া ওই এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসনে একটি নলকুপ স্থাপন করা হয়। ফলে দীর্ঘ দিনের পানির যে সংকট ছিলো তা দূরীভূত হলো।

গত মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) প্রকল্প দু'টি পরিদর্শনে গিয়ে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহান স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, পানির অপর নাম জীবন। পাহাড়ি দূর্গম এলাকায় অনেক জায়গায় শুষ্ক মৌসুমে তীব্র পানির সংকট থাকে। শীলছড়ি এলাকার বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরে পানির সংকটে ভূগছেন। বিষয়টি স্থানীয় সংবাদকর্মী ও এলাকার জনপ্রতিনিধি এবং এলাকাবাসীর মাধ্যমে প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হওয়ার সাথে সাথে তারা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে এলাকায় ন্যানো ফিল্টার, গভীর নলকূপ স্থাপন করে বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসন করেন। ফলে এলাকায় আর বিশুদ্ধ পানির সংকট থাকবে না।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি