আলোকিত রাঙামাটি
ব্রেকিং:
চিৎমরমে নির্বাচন স্থগিত; কাপ্তাইয়ের ৩ ইউপিতে ১০৭ জনের মনোনয়ন পত্র জমা কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগ নেতা হত্যার প্রতিবাদে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ সমাবেশ ঘরের দরজা ভেঙে আ.লীগ প্রার্থীকে হত্যা করলো জেএসএস’র সন্ত্রাসীরা
  • সোমবার   ১৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৩ ১৪২৮

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

CoronaBanner

করোনা আপডেট

১৭ অক্টোবর ২০২১

বাংলাদেশ

আক্রান্ত

৩১৪

সুস্থ

৫২৯

মৃত্যু

১৬

রাঙ্গামাটি

আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে করোনায় নতুন আক্রান্ত আরো ০০ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন- ৪২১২, মোট সুস্থ- ৪১৫৭, মোট মৃত্যু ৩৪ জন।

জুরাছড়িতে চলছে জুম কাটার ধুম

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০২১  


জুরাছড়ি (রাঙামাটি) প্রতিনিধিঃ- জুরাছড়ির পাহাড়ে পাহাড়ে এখন পাকা ধানের সুবাস। সকাল থেকে জুমে জুমে ধান কাটছে জুমিয়ারা। ধান কাটা শেষে জুমঘরে কিংবা জুমের ছায়া স্থানে মাড়াই করছেন তারা। পাহাড়ের চূড়ায় চূড়ায় পাকা ধান শোভা পাচ্ছে। জুমের ফলনও ভাল হয়েছে। ধান ছাড়াও জুমে হলুদ, মারফা, আদা, মরিচ, কচু, মিষ্টি কুমড়ো, তিল, ভুট্টা, বরবটিসহ প্রায় ৪০ জাতের সবজির চাষাবাদ হয়েছে। জুমের উৎপাদিত ধান দিয়ে ৬ থেকে ৯ মাস পর্যন্ত খাবারের যোগান পায় জুমিয়ারা।

শনিবার ও রবিবার মৈদং ও দুমদুম্যা ইউনিয়নে পাহাড়ে ঘুরে দেখা যায়, জুমের খেতগুলোতে কোথাও ধান কাটা চলছে, আবার কোথাও চলছে কাটার প্রস্তুতি। টিয়া, ঘুঘু, চড়ুই, বন্য শুকরসহ বিভিন্ন বন্যপ্রাণীর হাত থেকে ফসল রক্ষা করতে পাহারা দিচ্ছেন চাষীরা।

জুম চাষীরা জানান, তাঁরা পাহাড়ে আগাছা পরিষ্কার করে এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি ধান, কলা, মরিচ, আদা, বেগুন, শিম, মারফা, টিল, মিষ্টি কুমড়াসহ বিভিন্ন ফসলের বীজবপণ করেছেন। আগস্ট মাসের মাঝামাঝি অর্থাৎ ভাদ্র মাসে জুমের ধান পাকতে শুরু করে।

আরেক জুমচাষী জানান, জুমে আগে শুধু ধান চাষ করা হতো। এখন ধানের পাশাপাশি হাইব্রিড জাতের শাক-সবজিও রোপণ করছেন। ধান এবং বিভিন্ন কৃষিপণ্যের ভালোই ফলন হচ্ছে। বর্তমানে জুমে ধান কাটার ধুম পড়েছে। ধান কাটার পর ধাপে ধাপে শাক-সবজি তুলে বিক্রি করে তাদের সংসার চলে।

দুমদুম্যা ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সাধন কুমার চাকমা জানান, এ বছর ধানের অনেক ভালো ফলন হয়েছে। প্রতি বছর এপ্রিল মাসের শেষের দিকে শুরু হয় জুমে ধান লাগানোর প্রক্রিয়া। প্রায় ৩-৪ মাস পরির্চযার পর সেপ্টেম্বর মাসের শেষদিক থেকে পাহাড়ে জুমের ধান কাটা শুরু করে আর শেষ হয় অক্টোবর মাসে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ মাহফুজ আহমেদ সরকার বলেন, উপজেলায় ৭৩০ হেক্টর পাহাড়ি জুমে আউশ চাষাবাদ হয়েছে। এখন কর্তনের পর্যায়ে রয়েছে। আনুমানিক হেক্টর প্রতি চালে ১.৪ মেট্রিকটন ফলন আশা করা যায়।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি