আলোকিত রাঙামাটি
ব্রেকিং:
ইউপিডিএফ’র আস্তানায় যৌথবাহিনীর অভিযান: অস্ত্র ও গােলাবারুদ উদ্ধার
  • শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৮

  • || ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

CoronaBanner

করোনা আপডেট

২৬ নভেম্বর ২০২১

বাংলাদেশ

আক্রান্ত

২৩৯

সুস্থ

২৭৭

মৃত্যু

রাঙ্গামাটি

আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

সর্বশেষ:
রাঙামাটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত নাই। মোট আক্রান্ত- ৪২২৭, মোট সুস্থ- ৪১৯২, মোট মৃত্যু ৩৪ জন।

ঘরের দরজা ভেঙে আ.লীগ প্রার্থীকে হত্যা করলো জেএসএস’র সন্ত্রাসীরা

আলোকিত রাঙামাটি

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২১  

নিহত নেথোয়াই মারমা। ফাইল ছবি

কাপ্তাই উপজেলাধীন চিৎমরম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নেথোয়াই মারমা (৫৬) কে গুলি করে হত্যা করেছে জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা।

শনিবার দিনগত রাত প্রায় ১২ টার দিকে চিৎমরমের আগাপাড়া এলাকায় নিজ বাসাতেই তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। নিহত নেথোয়াই মারমা চিৎমরম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী ছিলেন। গত মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরীত এক পত্রে কাপ্তাইয়ের ৪টি ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন। তিনি চিৎমরম ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন।

জানা যায়, “নেথোয়াই মারমা নিরাপত্তার স্বার্থে এতদিন উপজেলা রেস্ট হাউজে ছিলেন। শনিবার মনোনয়ন পত্র জমা দিয়ে তিনি চিৎমরমে এলাকায় গিয়েছিলেন নেতাকর্মী ও স্বজনদের সাথে দেখা করতে। রাতে তার নিজ বাড়িতে জেএসএস (সন্তু)’র সবুজ পোশাক পরিহিত ১৫-১৬ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীর দল নেথোয়াই মারমার ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঢুকে পড়ে এবং ব্রাশ ফায়ার করে তাকে হত্যা করে বীর দর্পে চলে যায়।”

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ও কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অংসুই ছাইন চৌধুরী জানান, “চিৎমরমে সন্ত্রাসী হামলায় দু’জন যুবলীগ নেতাকে হত্যার ঘটনার পর থেকে তিনি (নেথোয়াই) উপজেলা সদর রেস্ট হাউজেই বসবাস করতেন। গতকালই মনোনয়ন জমা দিয়ে বাড়িতে গেছেন পরিবারের সাথে পরামর্শ করতে। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না।”

রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর এই হত্যাকাণ্ডের জন্য ‘জনসংহতি সমিতি’কে দায়ী করে বলেন, পাহাড়ে নির্বাচন আসলেই হত্যাকাণ্ডে মেতে উঠে এই সন্ত্রাসী সংগঠনটি। তিনি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পার্বত্য জেলার সকল ইউনিয়নের প্রার্থীদের নিরাপদে ও সতর্ক থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন এবং তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আইন-শৃংখলা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

উপজেলার চন্দ্রঘোনা থানার ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তারা জেনেছেন, রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

আলোকিত রাঙামাটি
আলোকিত রাঙামাটি