• রাঙামাটি

  •  রোববার, অক্টোবর ২, ২০২২

রাঙ্গামাটি

সেনাবাহিনী ও পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার

রাঙামাটিতে চাঁদার জন্য ৬ সিএনজি চালককে জিম্মি করলো জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

 আপডেট: ১২:৩৮, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

রাঙামাটিতে চাঁদার জন্য ৬  সিএনজি চালককে জিম্মি করলো জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীরা!
ছবি:- আলোকিত রাঙ্গামাটি 

রাঙামাটি কাপ্তাই সড়কে ৬ সিএনজি অটোরিকশাসহ চালকদের জিম্মি করে জেএসএস (সন্তু)’র অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। 

শুক্রবার (০২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাঙামাটি কাপ্তাই আসামবস্তি সড়কের ঝগড়াবিল তঞ্চঙ্গ্যাপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ‘শুক্রবার বিকেলে রাঙামাটি কাপ্তাই সড়কে চলাচলরত ৬টি সিএসজি অটোরিকশা ও অটোরিকশার চালকদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে জেএসএস (সন্তু)’র অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। এ সময় চালকদের  মোবাইল, গাড়ির চাবি ও টাকা কেড়ে নেয় সন্ত্রাসীরা। 

জেএসএস (সন্তু)’র সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি হওয়া অটোরিকশা চালকরা হলেন, (১) চালক মোঃ আশিক (৩৬) পিতাঃ মৃত আলাউদ্দিন কাপ্তাই ব্যাঙছড়ি, মুসলিম পাড়া, কাপ্তাই, (সিএনজি চট্টগ্রাম -থ-১৪-৬৪৮৪), (২) চালক মোঃ বশির (৫০) পিতাঃ মৃত আনোয়ার হোসেন ভূইয়া, তবলছড়ি মসজিদ কলোনী, রাঙামাটি সদর, (সিএনজি চট্টগ্রাম -থ-১১-০৪০৩), (৩) চালক মোঃ আবু জাফর (৩৮) পিতাঃ মৃত জুলকু মিয়া, গ্রামঃ তবলছড়ি মসজিদ কলোনী,  রাঙামাটি সদর।  মোঃ বাবু (১৯) পিতাঃ মোঃ ইলিয়াস, কাটা পাহাড়, পুরাতন পুলিশ লাইন, রাঙামাটি সদর, মোঃ সামীম হক পিতাঃ মোজ্জামেল হক, বালুছড়া, হাটহাজারী থানা, চট্টগ্রাম জেলা।

খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সন্ধ্যার দিকে চালক ৬ জনসহ ৬টি অটোরিকশা উদ্ধার করে। সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার খবর পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এলাকাটি সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস অধ্যুষিত। 

রাঙামাটি অটোরিকশা চালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবু জানান, ‘এক চালক আমাকে মোবাইলে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে দ্রুত সেনাবাহিনী ও পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করি। সন্ধ্যার দিকে সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চালকদের ও অটোরিকশা ৬টি উদ্ধার করে।’

রাঙামাটি কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ কবির হোসেন জানান, ‘অটোরিকশাসহ ৬ জন চালককে সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখার খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।’

মন্তব্য করুন: