• রাঙামাটি

  •  শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২

রাজনীতি

আমাকে চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে দেওয় হচ্ছে না-এরশাদ

 আপডেট: ০০:০০, ৩০ নভেম্বর ১৯৯৯

আমাকে  চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে দেওয় হচ্ছে না-এরশাদ

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, অসুস্থ হওয়ার পরও আমাকে চিকিৎসা করতে বাইরে যেতে দেয়া হচ্ছে না।

এভাবে আমাকে কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না, এগিয়ে যাব। আমার বয়স হয়েছে, চিকিৎসা করতে দেবে না, বাইরে যেতে দেবে না। মৃত্যুকে আমি ভয় করি না। বৃহস্পতিবার দুপুরে হঠাৎ করেই বনানীর নিজ রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে এসে গাড়ি থেকে না নেমেই নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এরশাদ এসব বিস্ফোরক মন্তব্য করেন।

নির্বাচন সামনে রেখে পার্টির মনোনয়ন প্রক্রিয়া শুরুর পর কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রকাশ্যে খুব একটা দেখা যাচ্ছিল না এরশাদকে। তার অসুস্থতার বিষয়ে জাতীয় পার্টি এবং ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের তথ্য দেয়া হচ্ছিল সাংবাদিকদের। এ অবস্থায় গতকাল দুপুরে হঠাৎ করেই বনানীর নিজ রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে এসে নেতাকর্মীদের সামনে কয়েক মিনিট কথা বলেন এরশাদ।

তিনি দলের নতুন মহাসচিবকে সহায়তা ও তার নির্দেশনা মেনে দলকে আরও গতিশীল করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। এরশাদ বলেন, আমি বেঁচে আছি, ভালো আছি। তোমরা ঐক্যবদ্ধ থেকে দলকে শক্তিশালী করো। আমরা নির্বাচনে যাব, জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অনেক ভালো করবে। দলকে বিজয়ের পথে নিয়ে যাব আমরা। তোমরা জাতীয় পার্টির পতাকাতলেই থেকো, কেউ দল ছেড়ে যেও না।

যদিও এর আগে বনানী অফিসে সংবিধান সংরক্ষণ দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় মোবাইল ফোনে সাবেক রাষ্ট্রপতি পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, জাতীয় পার্টি এখন কঠিন সময় পার করছে, আমরা ভেঙে পড়িনি। আগামীতে হয়তো আরও কঠিন সময় পার করতে হবে। সেজন্য জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকতে হবে। কেউ দল ছেড়ে যেও না, কেউ নিরুৎসাহিত হইও না। সবাই এমপি হতে পারে না, সবাইকে দলে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। কারণ সুদিন আমাদের আসবেই। ভালো থেকো সবাই।

এর আগে ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়ে এরশাদ নাটকীয়ভাবে অসুস্থ হয়ে সিএমএইচে ভর্তি হন। হাসপাতালে থাকা অবস্থায়ই তিনি এমপি নির্বাচিত হন এবং পরে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের দায়িত্ব পান। এবার একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রক্রিয়ার মধ্যে ‘অসুস্থ এরশাদের সিএমএইচে ভর্তির খবর এলে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়

আলোকিত রাঙামাটি

মন্তব্য করুন: