• রাঙামাটি

  •  শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০২২

রাঙ্গামাটি

রাঙামাটিতে পাংখোয়া ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও জীবন-জীবিকা শীর্ষক সেমিনার

রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ-

 প্রকাশিত: ১৪:৫৭, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২

রাঙামাটিতে পাংখোয়া ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও জীবন-জীবিকা শীর্ষক সেমিনার

পার্বত্য অঞ্চলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর হারিয়ে যাওয়া ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতিক ও জীবন আচার ফিরিয়ে আনতে আমাদেরকে আরো বেশী উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে বলে জানিয়েছেন রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী। তিনি বলেন, ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠী গুলোর সংস্কৃতিকে সামনে এগিয়ে নিতে প্রতিটি গোষ্ঠীর বয়োবৃদ্ধদের কাজে লাগানের অনুরোধ জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে আমার আছি আমাদের টিকে থাকতে হবে। এটি টিকিয়ে রাখার জন্য স্ব স্ব জনগোষ্ঠীর প্রবীণ মানুষদের নিয়ে নতুন করে কাজ করতে হবে।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনিষ্টিটিউট মিলনায়তনে পাংখোয়া ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও জীবন-জীবিকা শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

সংস্কৃতি বিষক মন্ত্রণালয় ও রাঙামাটি জেলা পরিষদের আয়োজনে রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনিষ্টিটিউটের পরিচালক (ভাঃ) রুনেল চাকমার সভাপতিত্বে আলোচনা সভা বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনিষ্টিটিউটের আহবায়ক রেমলিয়ানা পাংখোয়া, পাংখোয়া জনগোষ্ঠীর ভাষাবিদ ও উন্নয়ন কর্মী লাল ছোয়াক লিয়ানা পাংখোয়া, সাজেকে কংলাক মৌজার হেডম্যান চং মিং থং, বিলাইছড়ি ১২০ এ তিন কুনিয়া মৌজার সুমসামা পাংখোয়া, বান্দরবানের উন্নয়ন কর্মী রেভা. কে. রেমা বক্তব্য রাখেন।

চেয়ারম্যান বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের বিরাজমান পরিস্থিতিতে এ অঞ্চলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক কে টিকিয়ে রাখতে দেশের সকল জাতিগোষ্ঠীর সাথে তাল মিলিয়ে আমাদের নৃ-গোষ্ঠীর সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, স্ব স্ব জাতিগোষ্ঠীর লোকজন যদি এগিয়ে আসে শেখ হাসিনার সরকার সব সময় তাদের পাশে থাকবে।

সেমিনারে রাঙামাটি সহ তিন পার্বত্য জেলার পাংখোয়া জনগোষ্ঠীর ১০০ জন অংশ গ্রহণ করেন।

মন্তব্য করুন: