• রাঙামাটি

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

খেলা

অধরা ‘হেক্সা’ মিশনে আজ মাঠে নামছে ব্রাজিল

স্পোর্টস ডেস্কঃ-

 আপডেট: ১১:১৫, ২৪ নভেম্বর ২০২২

অধরা ‘হেক্সা’ মিশনে আজ মাঠে নামছে ব্রাজিল

ফুটবলের ইতিহাসে পাঁচটি বিশ্বকাপ জিতেছে সফল দলের তালিকায় শীর্ষে ব্রাজিল। সর্বশেষ ২০০২ সালে বিশ্বকাপের স্বাদ পেয়েছিল সেলেসাও খ্যাত দলটি। এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ সময়। দুই দশক হয়ে গেলেও আর শিরোপার স্বাদ পায়নি তারা। এবার কাতারে বেশ শক্তিশালী দল নিয়ে এসেছে তারা। লক্ষ্য ‘হেক্সা’ অর্থাৎ সংখ্যাটা ছয়ে নিয়ে যাওয়া।

‘মিশন হেক্সা’কে সামনে রেখে কাতার বিশ্বকাপ শুরু করতে যাচ্ছে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। দক্ষিণ আমেরিকান জায়ান্টদের প্রথম ম্যাচ সার্বিয়ার বিপক্ষে। বাংলাদেশ সময় আজ দিবাগত রাত ১টায় লুসাইল স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল।

এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ব্রাজিল-সার্বিয়া। ২০১৮ সালে রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে প্রথম ও শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল তারা। সেবার তাদেরকে ২-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছিল ব্রাজিল। তবে এবার আরও শক্তিশালী দল হয়ে বিশ্বকাপে এসেছে সার্বিয়া।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দিকে চোখ বুলালেই দেখা যাবে সার্বিয়ার শক্তিমত্তা। পর্তুগালের সঙ্গে একই গ্রুপে ছিল তারা। তাতে ৮ ম্যাচের ৬টিতেই জয় তুল নিয়েছে। ড্র করেছে ২ ম্যাচে। তাতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই দলটি সরাসরি নাম লেখায় বিশ্বকাপে। তাই ইউরোপের এই শক্তিকে খাটো করে দেখার উপায় নেই।

এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত আর্জেন্টিনা-জার্মানির মতো দলও নিজেদের প্রথম ম্যাচে অপেক্ষাকৃত দুর্বল শক্তির কাছে হেরেছে। ব্রাজিল-সার্বিয়ার ম্যাচটি যে মাঠে হবে, সেখানেই গত পরশু মেসির আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে বিশ্বকাপ ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অঘটনের জন্ম দিয়েছে এশিয়ার দল সৌদি আরব।

তাই ফিফা র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকলেও সার্বিয়াকে নিয়ে সতর্কই থাকতে হবে ব্রাজিলকে। যদিও ফর্ম ও স্কোয়াডের গভীরতার কারণে ব্রাজিলকে এবার শিরোপার সবচেয়ে বড় দাবিদার ভাবা হচ্ছে।

ব্রাজিল সবশেষ গ্রুপপর্বে হেরেছিল ১৯৯৮ সালের বিশ্বাকপে। এরপর বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বে কখনো হারেনি ব্রাজিল। এই পর্যায়ে টানা ১৫ ম্যাচে অপরাজিত তারা। বিপরীতে বিশ্বকাপে শেষ নয় ম্যাচের সাতটিতেই হেরেছে সার্বিয়া। বিশ্বকাপ ছাড়া আর একবারই একে অন্যের বিপক্ষে খেলেছে এই দুই দল। ২০১৪ সালের সেই প্রীতি ম্যাচেও ১-০ গোলে জিতেছিল ব্রাজিল।

সেলেসাওরা তাই এই ম্যাচে পরিষ্কার ফেবারিট। কিন্তু ফেবারিটদের পতনের বিশ্বকাপে যে আরেকটি অঘটন ঘটবে না, সেই নিশ্চয়তা কে দেবে?ইতোমধ্যেই তো আর্জেন্টিনা ও জার্মানি তাদেরকে সর্তকবার্তা দিয়ে রেখেছে।

মন্তব্য করুন: